1. hmamanulislam@gmail.com : News Cox : News Cox
রবিবার, ২০ জুন ২০২১, ০৮:০৮ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
কক্সবাজার সদর উপজেলার ইসলামাবাদ ইউনিয়নের এক ওয়ার্ডেই বাংলাদেশি বনেছেন দুই শতাধিক রোহিঙ্গা! ভল্ট থেকে ৪ কোটি টাকা উধাও, যা বললেন ঢাকা ব্যাংকের এমডি প্রধান বিচারপতির আদেশ জারি রবিবার থেকে বসছে হাইকোর্টের সব বেঞ্চ তালেবানদের সঙ্গে সংঘর্ষ, আফগান সেনাবাহিনীর ২৩ কমান্ডো নিহত করোনা নিয়ে কোনো রকম ঝুঁকি নিতে না করেছেন প্রধানমন্ত্রী বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার ভাইস মার্শাল শেখ আব্দুল হান্নানের দায়িত্ব গ্রহণ উদ্ভট বিবৃতি নিয়ে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য দলের নেতাকর্মীসহ সংশ্লিষ্টদের প্রতি জাফর আলম এমপির আহবান সেনাবাহিনীর নতুন প্রধান হচ্ছেন লেফটেন্যান্ট জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ কক্সবাজার আদর্শ মহিলা কামিল মাদ্রাসার গর্ভনিং বডির দাতা সদস্য রফিক আহমদ চৌধুরীর ইন্তেকাল এমনভাবে ঈদ উদযাপন করবেন না, যাতে সংক্রমণ বেড়ে যায় : প্রধানমন্ত্রী

অপরেশন ক্লীনহার্টের মত অভিযান এ মুহুর্তে দেশে খুবই দরকার।

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ৩১ আগস্ট, ২০২০

বাংলাদেশের ইতিহাসে অপারেশন ক্লীনহার্ট একটি সফল অভিযানের নাম।বাংলাদেশ সেনাবাহিনী এ অভিযানে আমজনতার সর্বাধিক সমর্থন পেয়েছিল।দেশের মানুষ  তখন দরজা খোলা রেখে নির্ভয়ে ঘুমাই ছিল । দেশে তখন গুম,খুন,ডাকাতি,চাঁদাবাজি,ধর্ষন ছিলনা বল্লেই চলে।২০০২সালের ১৭ই অক্টোবর সেনাবাহিনীর ১জন মেজর জেনারেলের নেতৃত্বে ৪০ হাজার যৌথ বাহিনী নিয়ে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছিল।যেখানে ২৪০২৩ জন সেনাবাহিনীর সদস্য ছিল।বাকী সদস্য অন্যান্য বাহিনী থেকে নেওয়া হয়েছিল।আমার মনে পড়ে তখন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে লাশ না পেয়ে ডুমরা অলস সময় পার করেছিল।দেশের সার্বিক আইন শৃঙ্খলা বিবেচনা করে এ রকম অভিযান পরিচালনা করা অত্যন্ত জরুরী মনে করছি।এখন দেশে গুম,খুন,চাঁদাবাজি,সন্ত্রাস,ঘুষ,দূর্নীতি যে ভাবে মাথাছাড়া দিয়ে উঠেছে তাতে সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্য হচ্ছে।সাধারন জনগন এখন  দিনদিন সরকারের প্রতি আস্থা ও বিশ্বাস হারিয়ে ফেলছে।বিশেষ করে দূর্নীতি দমন করতে না পারলে সরকার যতই সফল মনে করুক তা জনগন মানতে নারাজ।সরকারের উন্নয়নের ফিরিস্তি মাটির নিচে চাপা পড়ে যাবে।জিকে শামীম, সম্রাট, পাপিয়া,সাহেদ,সাবরিনা, প্রদীপ, লিয়াকতদের মত আরো হাজার হাজার দুষ্ট এদেশে জন্ম নিয়েছে।তাদের আটকানো না হলে আমাদের দেশে গুম,খুন,চাঁদাবাজি কমবে না।দেশের আমজনতা মনে করে সরকার দলীয় লোকজন রাজনীতিকে ঢাল হিসাবে ব্যবহার করে রাতারাতি কালো টাকার এবং অঢেল সম্পদের মালিক হয়েছেন।আমাদের প্রতিবেশী দেশ ভারতে সহজে আসা যাওয়া করতে পারাই অনেকে এ কালো টাকা প্রথমে ভারতে এবং পরবর্তিতে সুবিধামত দেশে পাচার করে।এখনো সময় আছে এ সব কালোবাজারী,দূর্নীতিবাজ,চাঁদাবাজদেরকে ধরার জন্য অপারেশন ক্লীনহার্টের মত অভিযান জরুরী। আমাদের বিশ্বাস সেনাবাহিনীর অফিসার দিয়ে যৌথবাহিনী গঠন করে একমাস পরীক্ষামূলক অপারেশন চালানো হলে ওসি প্রদীপরা এজাতীয় ঘটনা করার সাহস করবেনা।সরকারে প্রতি দেশের জনগনের আস্তা ফিরে আসবে।তা ছাড়া দেশের সকল সেক্টরে দূর্নীতি কমবে।আমরা দেখেছি দেশের প্রয়োজনে সেনাবাহিনী সবসময় জনগনের পাশে ছিল।আগামীতে ও এ দেশের আমজনতা সেনাবাহিনীকে পাশে পাবে।গত নির্বাচনে সেনাবাহিনীর ভুমিকা নিয়ে জনমনে মিশ্র প্রতিক্রিয়া থাকলে ও এ অভিযানে জনগনের কাছে আস্থাভাজন হয়ে উঠার সুযোগ সৃষ্টি হবে। ২০০২ সালে আমরা দেখেছি বড় বড় অনেক আমলারা ও তাদের অপকর্মের জন্য এ দেশ প্রেমিক যৌথ বাহিনীর হাতে লাঞ্ছিত হয়েছিল।তাই সচিবালয়ের কোন কোন আমলা অপারেশনের বিরোধীতা করতে পারে।তাই সংসদে সিদ্ধান্ত নিয়ে সরকার চাইলে এ অভিযান পরিচালনা করতে পারে।আশাকরি এ ধরণের অভিযানে দেশের সকল সেক্টরে আবার শান্তি শৃঙ্খলা ফিরে আসবে।তাই অপারেশন ক্লীনহার্টের মত একটি অভিযান খুবই প্রয়োজন মনে করছি।
লেখক
মোহাম্মদ সেলিম উদ্দিন
ব্যবস্থাপনা ও বার্তা সম্পাদক
নিউজ কক্স বিডি ডটকম

Share this Post in Your Social Media

এই ধরনের আরও খবর
Copyright © 2020, NewsCox. All rights reserved.
NewsCox developed by 5dollargraphics