1. hmamanulislam@gmail.com : News Cox : News Cox
রবিবার, ২০ জুন ২০২১, ০৭:৫৫ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
কক্সবাজার সদর উপজেলার ইসলামাবাদ ইউনিয়নের এক ওয়ার্ডেই বাংলাদেশি বনেছেন দুই শতাধিক রোহিঙ্গা! ভল্ট থেকে ৪ কোটি টাকা উধাও, যা বললেন ঢাকা ব্যাংকের এমডি প্রধান বিচারপতির আদেশ জারি রবিবার থেকে বসছে হাইকোর্টের সব বেঞ্চ তালেবানদের সঙ্গে সংঘর্ষ, আফগান সেনাবাহিনীর ২৩ কমান্ডো নিহত করোনা নিয়ে কোনো রকম ঝুঁকি নিতে না করেছেন প্রধানমন্ত্রী বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার ভাইস মার্শাল শেখ আব্দুল হান্নানের দায়িত্ব গ্রহণ উদ্ভট বিবৃতি নিয়ে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য দলের নেতাকর্মীসহ সংশ্লিষ্টদের প্রতি জাফর আলম এমপির আহবান সেনাবাহিনীর নতুন প্রধান হচ্ছেন লেফটেন্যান্ট জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ কক্সবাজার আদর্শ মহিলা কামিল মাদ্রাসার গর্ভনিং বডির দাতা সদস্য রফিক আহমদ চৌধুরীর ইন্তেকাল এমনভাবে ঈদ উদযাপন করবেন না, যাতে সংক্রমণ বেড়ে যায় : প্রধানমন্ত্রী

ডেসটিনি এমডির দুই মামলা ছয় মাসের মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশ

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২০ আগস্ট, ২০২০

অনলাইন ডেস্ক
মানিলন্ডারিংয়ের অভিযোগে করা দুই মামলায় ডেসটিনি গ্রুপের কারাবন্দি ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) রফিকুল আমীনের জামিন আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট।একইসঙ্গে মামলা দুটি বিচারিক আদালতে ছয় মাসের মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি আহমেদ সোহেলের ভার্চুয়াল বেঞ্চ আজ বৃহস্পতিবার (২০ আগস্ট) এ আদেশ দেন।আদালতে দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী খুরশীদ আলম খান। রফিকুল আমীনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী আবদুল মতিন খসরু। আর রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক।আইনজীবী খুরশীদ আলম খান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।মানি লন্ডারিং এর অভিযোগে ২০১২ সালের ৩১ জুলাই কলাবাগান থানায় দুটি মামলা করে দুদক। ডেসটিনি মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ (এমএলএম) ও ট্রি-প্লানটেশন প্রকল্পের নামে গ্রাহকদের কাছ থেকে সংগৃহীত অর্থের মধ্যে তিন হাজার ২৮৫ কোটি ২৫ লাখ ৮৮ হাজার ৫২৪ টাকা এবং এক হাজার ১৭৮ কোটি ৬১ লাখ ২৩ হাজার ২০৪ টাকা আত্মসাত করে পাচারের অভিযোগে মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইনে এই মামলা দুটি করা হয়। ২০১৪ সালের ৫ মে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়।ওই মামলায় ২০১৬ সালের ২০ জুলাই ডেসটিনির চেয়ারম্যান মোহাম্মদ হোসেন ও এমডি রফিকুল আমীনকে জামিন দেন হাইকোর্ট। পরে দুদকের আবেদনে তা স্থগিত করে দেন আপিল বিভাগ। পরবর্তীতে এ বিষয়ে আপিল বিভাগে শুনানির একপর্যায়ে তাঁদের লাগানো ৩৫ লাখ গাছের মধ্যে প্রয়োজনীয় সংখ্যক গাছ বিক্রি করে দুই হাজার ৮০০ কোটি টাকা দেবেন- এমন শর্তে আপিল বিভাগ তাঁকে জামিন দেন আপিল বিভাগ। গাছ বিক্রি করতে না পারলে নগদ দুই হাজার ৫০০ কোটি টাকা দিতে বলা হয়। ওই শর্ত সংশোধন চেয়ে ২০১৭ সালে আপিল বিভাগে আবেদন করেন রফিকুল আমীন।ওইসময় শুনানিতে ডেসটিনির আইনজীবী আদালতে বলেন, ‘গাছ ছাগলে খেয়ে ফেলেছে।’ এরপর ওই জামিন আবেদন ওই বছরের ৩০ নভেম্বর খারিজ হয়ে যায়। ফলে তাঁদের আর মুক্তি হয়নি। গতবছর আবারো জামিন চেয়ে আবেদন করা হয় আপিল বিভাগে। গতবছর ১৭ ডিসেম্বর আপিল বিভাগ তাঁদের জামিন আবেদন খারিজ করে দেন। একইসঙ্গে নিম্ন আদালতে বিচারাধীন মামলা দ্রুত নিষ্পত্তির নির্দেশ দেওয়া হয়। এ অবস্থায় হাইকোর্টে জামিন আবেদন করেন তাঁরা। গত ২২ জুলাই ওই আবেদন খারিজ করে দেন আদালত।

Share this Post in Your Social Media

এই ধরনের আরও খবর
Copyright © 2020, NewsCox. All rights reserved.
NewsCox developed by 5dollargraphics