1. hmamanulislam@gmail.com : News Cox : News Cox
বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ০৬:৫১ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
মুসলিম প্রধান ১৩ দেশের নাগরিকদের নতুন ভিসা বন্ধ করল আমিরাত মহা সড়কে বেপরোয়া মারছা পরিবহন ,রামুতে মারছা-প্রাইভেট কার মুখোমুখী সংঘর্ষ,আহত ৩ জন বিশ্ব ফুটবলের যাদুকর ম্যারাডোনা মারা গেছেন জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন(এনডিএম) পেকুয়া উপজেলা আহবায়ক কমিটি গঠিত কক্সবাজার জেলা গোয়েন্দা পুলিশের বিশেষ অভিযানে বিপুল পরিমান চোরাই মোবাইল উদ্ধার কক্সবাজার সিটি কলেজ হতে বাস টার্মিনাল পর্যন্ত সন্ধ্যার পর ছিনতাইকারী ও ডাকাতদের অভয়ারণ্য সাহিত্যিকা পল্লীতে রাস্তা নির্মাণে ঠিকাদারের অনিয়ম এলাকাবাসীর ক্ষোভ চলতি বছরেই নতুন বিসিএসের ঘোষণা মাস্ক নিয়ে দুয়ারে দুয়ারে পুলিশ ব্রিটিশ প্রতিবেদন: বাংলাদেশে মানবাধিকার নিয়ে উদ্বেগ

রোহিঙ্গা সংকটের স্থায়ী সমাধানের আহ্বান ইউএনএইচসিআর’র

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ২২ আগস্ট, ২০২০

অনলাইন ডেক্স:
জাতিসঙ্ঘ উদ্বাস্তু বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর মিয়ানমারের বাস্তুহারা ও রাজ্যহারা রোহিঙ্গা সম্প্রদায়ের জন্য সহায়তা প্রদান এবং সংকটের সমাধানের জন্য পুনরায় আহবান জানিয়েছে।২০১৭ সালের আগস্ট থেকে মিয়ানমার থেকে পালিয়ে এসে রোহিঙ্গা শরনার্থীদের বাংলাদেশে আশ্রয় গ্রহণের তিন বছর পূর্তি উপলক্ষে জাতিসঙ্ঘ আজ এক বিবৃতিতে বলেছে, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে শুধুমাত্র উদ্বাস্তু এবং তাদের স্বাগতিক সম্প্রদায়কে সমর্থন দিলেই চলবে না, তাদেরকে রোহিঙ্গা সংকট সমাধানের উপায়ও খুজে বের করতে হবে।ইউএনএইচসিআর’র এক বিবৃতিতে আজ বলা হয়েছে, বাংলাদেশ রোহিঙ্গাদের মানবিক সহায়তা দিয়ে আসছে, এরপর কোভিড-১৯ সংক্রমন অতিরিক্ত জটিলতা সৃষ্টি করেছে।বিবৃতিতে বলা হয়, বাংলাদেশ রোহিঙ্গাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছে এবং জীবন রক্ষাকারি মানবিক সহায়তা প্রদান করেছে। প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে আশ্রয়গ্রহণকারী দশ জন রোহিঙ্গা উদ্বাস্তুর মধ্যে নয় জনই এখন বাংলাদেশে অবস্থান করছে।বিবৃতিতে আরো বলা হয়, রোহিঙ্গা শরণার্থীদের এবং বাংলাদেশী স্বাগতিক কমিউনিটিতে অব্যাহত বিনিয়োগের মাধ্রমে এই উদারতাকে অবশ্যই স্বীকৃতি দিতে হবে। মূলত: রোহিঙ্গাদের দুর্দশার সমাধান এবং রাখাইন রাজ্য বিষয়ক এডভাইজারি কমিটির সুপারিশ বাস্তবায়ন করা মিয়ানমারের ওপর নির্ভরশীল যা করতে তারা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।বিবৃতিতে রোহিঙ্গা উদ্বাস্তুদের নিরাপদ ও টেকসই প্রত্যাবাসনে মিয়ানমার ও রোহিঙ্গা শরণার্থীদের মধ্যে আলোচনা অব্যাহত রাখার ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়। এতে বলা হয়, রোহিঙ্গারা নিজ আবাসভূমিতে ফিরে যেতে পারে, এমন পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে, এবং স্বাধীনভাবে তাদের চলাচলের ক্ষেত্রে আরোপিত বিধিনিষেধ তুলে নিতে হবে। তাগের নাগরিকত্ব ফিরিয়ে দিতে হবে।বিবৃতিতে বলা হয়, মিয়ানমারের মোট রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠির তিন ভাগই এখন দেশের বাইরে অবস্থান করছে। এরমধ্যে বাংলাদেশের কক্সবাজারে রোহিঙ্গা শিবিরেই ৮ লাখ ৬০ হাজার রোহিঙ্গা রয়েছে।ইউএনএইচসিআর বলেছে, আমাদের সম্মিলিত প্রয়াস শুধুমাত্র গৃহহারা রোহিঙ্গাদের মযার্দাই নিশ্চিত করবে না, তাদের প্রত্যাশা ও উজ্জল ভবিষ্যতও নিশ্চিত করবে।

Share this Post in Your Social Media

এই ধরনের আরও খবর
Copyright © 2020, NewsCox. All rights reserved.
NewsCox developed by 5dollargraphics